সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮, ১০ বৈশাখ ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

জালিয়াতচক্র ধরতে তৎপর বেরোবি প্রশাসন

ডেস্ক রিপোর্ট | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2016-11-12 00:00:00

ভর্তি পরীক্ষা আসলেই শোনা যায় ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের মতো ঘটনা। এতে বেশিরভাগ সময়ে জড়িত থাকেন প্রভাবশালী ছাত্রনেতারা কিংবা রাজনৈতকি ব্যাক্তিবর্গ।

এমনকি ভর্তি করানোর কথা বলে ভর্তিচ্ছুদের কাছে হতে প্রতারকচক্র হাতিয়ে নেয় হাজার হাজার টাকা। এমনকি ভর্তি পরীক্ষায় ব্যবহার করা হয় আধুনিক ডিভাইস। পরিবর্তন করা হয় ওয়েমারসীট। এ সবের পিছনে কাজ করেন অধিকাংশ সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত কিছু অসাদু কর্মকর্তা কিংবা শিক্ষক । এ ইতিহাস নতুন নয়। আর এই সব জালিয়াতি ঠেকাতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশা পাশি গোয়েন্দা সংস্থাগুলোও কাজ করছেন বলে জানিয়েছেন রংপুরের বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. একে এম নূর উন নবী।

বিগত বছরের মতো আসন্ন ( ১৩ নভেম্বর) ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে সক্রিয় হয়েছে জালিয়াতচক্র। আর এই জালিয়াতচক্রকে ধরতে কঠোর নজর দারিতে রাখা হয়েছে সন্দেহভাজনদের। ইতোমধ্যেই কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে ভুয়া প্রশ্নপত্র সরবরাহের কাজও চালানো হচ্ছে ক্যাম্পাসের পার্শবর্তী মেসগুলোতে।

বিশ্ববিদ্যালয়সূত্রে জানা যায়,গত ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে মোট ২১ জন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়। দীর্ঘ পাচ মাস তদন্তের পর এই শিক্ষাবর্ষে জালিয়াতির সাথে জড়িত একজন শিক্ষক ও বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকেও বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

ক্যাম্পাসের আবাসিক সূত্রে জানা যায়, যাতে পরীক্ষা চলাকালীন কিংবা অন্য কোন সময়ে ক্যাম্পাসে কোন বিশৃঙ্খলা না হয় এই জন্য তিনটি আবাসিক হলও ১২ নভেম্বর সকাল ১০ মধ্যে শিক্ষার্থী শুন্য করার কথা বলা হয়েছে। যদিও ১৮ নভেম্বর সকাল ১০ টার মধ্যে হলগুলো খুলে দেওয়া হবে।হলগুলো বন্ধ করা হলেও ১৩ থেকে ১৭ নভেম্বরের মধ্যে বাইরের কোন আত্মীয়কে না রাখার শর্তে শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের ডরমেটরী খোলা রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ( চলতি দায়িত্ব) শাহিনুর রহমান জানান,‘ যে কোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় সব সময় তৎপর থেকে কাজ করবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।’

উপাচার্য জানান,‘ অসদুপায়ীদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে গত বারের মতো এবারও ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করবে ।’

জানা যায়, এবারই প্রথম এই বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছপদ্ধতিতে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ৬ টি অনুষদের ২১ বিভাগের ১ হাজার ২৩০ টি আসনের বিপরীতে আবেদন করেছেন ৬১ হাজার ৫৭৭ জন শিক্ষার্থী।

এ ও বি ইউনিটের ৪ টি করে, ডি ইউনিটের ৩ টি করে ও সি, ই ও এফ ইউনিটের ২ টি করে শিফটে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

ঢাকা/ এইচ আর