শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮, ৭ আষাঢ় ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

জামায়াতের ২৮ নারী কর্মীকে দুই দিনের রিমান্ডে

ডেস্ক রিপোর্ট | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2017-02-03 21:08:20

নাশকতার পরিকল্পনার অভিযোগে ঢাকার মোহাম্মদপুর থেকে গ্রেপ্তার জামায়াতে ইসলামীর ২৮ নারী কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

ঢাকার মহানগর হাকিম দেলোয়ার হোসেন খান শুক্রবার তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বলে আদালত পুলিশের এসআই নিজাম উদ্দিন জানান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মোহাম্মদপুরের তাজমহল রোডের একটি বাসা থেকে জামায়াতের এই নারী কর্মীদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাদের বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয় বলে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার জানান।

এই মামলায় আদালতে হাজির করেজিজ্ঞাসাবাদের জন‌্য তাদের সাত দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ। রিমান্ড আবেদন বাতিল করে আসামিদের জামিন চান আইনজীবী এস এম কামালউদ্দিন ও আব্দুর রাজ্জাক।

তাদের আবেদনে বলা হয়, “জামায়াতে ইসলামী একটি বৈধ রাজনৈতিক দল। বৃহস্পতিবার আমাদের সাংগঠনিক বৈঠক ছিল। কোনো প্রকার নাশকতার পরিকল্পনা ছিল না।”

শুনানি শেষে বিচারক জামিন আবেদন বাতিল করে জামায়াতের নারী কর্মীদের দুই দিনের হেফাজত মঞ্জুর করেন।

পুলিশের করা মামলায় ২৮ আসামি হলেন- শাহনাজ বেগম(৫৬), নাইমা আক্তার(৫৫), উম্মে খালেদা(৪০), জোহরা বেগম(৩৫), সৈয়দা শাহীনা আক্তার(৪০), উম্মে কুলসুম(৪২), জেসমিন খান(৪৩), খোদেজা আক্তার(৩২), সালমা হক(৪৫), সাকিয়া তাসলিম(৪৭), সেলিমা সুলতানা সুইটি(৪৮), হাফসা(৫৫), আকলিমা ফেরদৌস(৩৭),  রোকসানা বেগম(৫১), আফসানা মিমি(২৫), শরিফা আক্তার(৫৩), রুবিনা আক্তার(৩৮), তাসলিমা(৫২), আসমা খাতুন(৩৫), সুফিয়া(৪১), আনোয়ারা বেগম(৪৬), ইয়াসমিন আক্তার(৪১), সাদিয়া(৪৫), ফাতেমা বেগম(৫১), উম্মে আতিয়া(৪৬), রুমা আক্তার(৩২), রাজিয়া আক্তার(৪২) ও রহিমা খাতুন(৩০)।

এদের মধ্যে যুদ্ধাপরাধে দণ্ডিত কারও কারও স্বজন রয়েছেন বলে পুলিশ কর্মকর্তা বিপ্লব জানান।

সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে’ তাজমহল রোডের একটি ভবনের দ্বিতীয় তলার ফ্ল‌্যাটে অভিযান চালায় পুলিশ।সেখান থেকে বেশ কিছু বই, প্রচারপত্র, সংগঠনের মাসিক রিপোর্ট ফর্ম উদ্ধার করা হয়।

উপ-কমিশনার বিপ্লব বলেন, “নাশকতার উদ্দেশ্যেই তারা জড়ো হয়েছিলেন। আমাদের কাছে খবর রয়েছে, এদের মধ্যে যুদ্ধাপরাধীদের স্বজনরাও রয়েছেন।”

তবে এই নারীরা সকাল পর্যন্ত পুলিশকে বিস্তারিত কিছু বলেনি দাবি করে সে সময় তিনি বলেন, “তাই তাদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড প্রয়োজন।” সূত্র: বিডি নিউজ।

 

 

ঢাকা/ এইচ আর