রবিবার, ২৭ মে ২০১৮, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

ছাত্রলীগ কর্মীদের শাস্তি চায় শিক্ষকরাও

শাবিপ্রবিতে সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে মানবন্ধন

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2017-04-09 15:54:41

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সংবাদকর্মীদের উপর হামলায় জড়িত ও ইন্ধনদাতাদের বিচারের দাবিতে কর্মসূচি পালিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে।

রোববার (৯ এপ্রিল) বেলা সাড়ে বারোটায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে মানববন্ধন, সমাবেশ ও পরবর্তীতে ক্যাম্পাসে মৌন মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ থেকে জড়িতদের অতিদ্রুত শনাক্ত করে বিচার দাবি করা হয়।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আব্দুল আওয়াল বিশ্বাস, গণিত বিভাগের অধ্যাপক আশরাফ উদ্দিন, সৈয়দ মুজতবা আলী হলের প্রাধ্যক্ষ ড. শরদিন্দু ভট্টাচার্য, শাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মুহিবুল আলম, সহকারী অধ্যাপক সরকার সোহেল রানা, মনির হোসেন প্রমুখ।

সিলেটের কর্মরত বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকরাও এতে উপস্থিত ছিলেন। আরো উপস্থিত ছিলেন সিলেট প্রেস ক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ রেনু, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট-(ইমজা) এর নেতৃবৃন্দ। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে সহকারী অধ্যাপক সরকার সোহেল রানা বলেন ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় যখন একজন সাংবাদিকের উপর হামলা হয় তখন বিষয়টি সবাইকে ভাবিয়ে তুলে। একজন সাংবাদিক যখন নিরাপত্তহীনতায় ভুগে তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়ে নতুন করে কিছু বলার থাকে না।

শাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মুহিবুল আলম বলেন, শাবি ছাত্রলীগের কতিপয় কিছু নেতার নির্দেশে এ ধরনের ঘটনা নতুন নয়। এর আগে তারা শিক্ষকদের গায়ে হাত দিয়েছে, যৌন হয়রানি কারীদের রক্ষা করেছে। এবার সাংবাদিকদের পিটিয়েছে। ঘটনায় সংশ্লিষ্টদের আজীবন বহিস্কারের দাবি জানান তিনি।

নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. আব্দুল আওয়াল বিশ্বাস বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের দ্বারা সিনিয়রদের উপর আঘাত নতুন নয়। এভাবে একটি বিশ্ববিদ্যালয় চলতে পারে না। আমি এইসব হামলাকারীদের প্রাতিষ্ঠানিক বিচার দাবি করছি।

সিলেটের সাংবাদিকরা এ ঘটনায় শাবি ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় ভাবে ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান জানান। বিচারহীনতার সংস্কৃতির ফলে ঐতিহ্যবাহী এ সংগঠনটির নাম ভাঙিয়ে ছাত্রলীগ নামধারী বেশকিছু ব্যক্তি সুবিধা নিচ্ছে ও সংগঠনের সুনাম ক্ষুন্ন করছে বলে জানান তারা।

উল্লেখ্য, ছাত্রী উক্ত্যক্তের ঘটনায় প্রতিবাদ করায় শনিবার রাতে শাবি ছাত্রলীগ সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের নির্দেশে বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সরদার আব্বাস ও সহ-সভাপতি সৈয়দ নবীউল আলমকে পিটিয়ে আহত করে তার কর্মীরা।

 

 

 

ঢাকা/ জে এ/ এইচ আর