রবিবার, ২৭ মে ২০১৮, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু করুন: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2017-07-16 16:26:48

‘আমি নেত্রীর পক্ষ থেকে একটি কথা বলে চাই। আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি এখন থেকেই শুরু করুন। নির্বাচনের কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি এখন থেকেই করতে হবে। অনতিবিলম্বে এই উদ্যোগ নিতে শুরু করুন।’

রোববার (১৬ জুলাই) নগরীর বাকলিয়ায় কে বি কনভেনশন হলে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনারা ঐক্যবদ্ধ না হলে, আপনারা দুর্বল হলে আওয়ামী লীগের যে ক্ষতি হবে ২০০১ সালের চেয়েও ভয়ংকর হবে পরিস্থিতি।  মনে আছে ২০০১ সাল ? বিএনপি ক্ষমতায় আসলে দেশের কি পরিস্থিতি হবে সেটা একবার ভেবে দেখেন ?

‘২০০১ সালের পর পাঁচ বছর বাংলাদেশে ছিল অমানিশার অন্ধকার। সেই অমানিশার ‍অন্ধকারে ফিরে যাবে দেশ যদি বিএনপি আবার ক্ষমতায় আসে।  বিএনপি এবং তার দোসররা যদি ক্ষমতায় আসে আবারও একুশে আগস্টের মতো ঘটনা ঘটবে।  আবারও ২১ হাজার আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীর রক্ত ঝরবে, খুন-লুন্ঠন হবে।  বিএনপি ক্ষমতায় এলে আবারও নজিরবিহীন খুন, লুন্ঠনের নারকীয় নৈরাজ্য ফিরে আসবে। ’

তিনি আরও বলেন, অতীতের সেই দুঃসহ স্মৃতি যদি মনে থাকে তাহলে অনৈক্য করবেন না, কলহ করবেন না।  দলকে বিভক্ত করবেন না।  ঘরের মধ্যে ঘর করবেন না।  মশারির মধ্যে মশারি খাটাবেন না।  এই কাজটা করলে ক্ষতিটা আমাদের।

এসময় তিনি নেতাকর্মীদের হাত তুলে এক থাকার ওয়াদা করার আহ্বান জানান।  উপস্থিত নেতাকর্মীরা হাত তুলে প্রতিশ্রুতি দেন।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ও মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, কেন্দ্রীয় উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন এবং কেন্দ্রীয় উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া

চট্টগ্রাম দক্ষিণের সাংসদদের মধ্যে ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, সামশুল হক চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মোস্তাফিজুর রহমান এবং ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভি। 

দক্ষিণ চট্টগ্রামের ৮টি উপজেলা ও ৫টি পৌরসভার জনপ্রতিনিধি এবং সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ প্রায় দুই হাজার প্রতিনিধি সভায় যোগ দেন।

 

 

ঢাকা/ এইচ আর