রবিবার, ২৭ মে ২০১৮, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

বিএল কলেজে ছাত্রদের দুই পক্ষের সংঘর্ষ: আহত ৬

ডেস্ক রিপোর্ট | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2017-07-16 16:44:35

বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন (বিএম) কলেজে ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষ ছাত্রদের মধ্যে দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের ছয়জন ছাত্র আহত হয়েছেন। রোববার (১৬ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে ঘটনার সূত্রপাত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা জানান, সমাজবিজ্ঞান দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও অশ্বিনী কুমার ছাত্রাবাসের আবাসিক ছাত্র মো. অলি তার বান্ধবীকে নিয়ে জীবনানন্দ দাশ মঞ্চে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় অলির বান্ধবীকে ইভটিজিং করে সমাজকল্যাণ বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র এবং জীবনানন্দ দাশ হলের আবাসিক ছাত্র পলাশ।

এনিয়ে অলি ও পলাশের মধ্যে তর্কের একপর্যায়ে দু’জনের মধ্যেই হাতাহাতি হয়। পরে অলি অশ্বিনী কুমার ছাত্রাবাসে গিয়ে তার সহযোগীদের নিয়ে পলাশের উপর হামলা চালায়। এসময় পলাশ ক‌লেজ ক্যা‌ফেটেরিয়ায় ব‌সে নাস্তা খা‌চ্ছি‌লেন।

একপর্যায়ে পলাশের সহযোগীরা জীবনানন্দ দাশ হল থেকে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বের হয়ে আসলে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এমনকি ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনাও ঘটে।

এতে মূহুর্তের মধ্যেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো ক্যাম্পাস জুড়ে। কিছুক্ষণপর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে উভয়পক্ষের ছয়জন আহত হন। এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় অর্থনীতি বিভাগের গোপাল নামে এক ছাত্রকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিএম কলেজ কর্মপরিষদ (বাকসু)’র ক্রীড়া সম্পাদক ফয়সাল আহম্মেদ মুন্না জানান, যাদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে, তারা উভয়পক্ষেই ছাত্র। ঝামেলার কিছুক্ষণের মধ্যেই সবাইকে হলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতয়ালি মডেল থানার উপ পরিদর্শক(এসআই) মশিউর রহমান বলেন, তুচ্ছ বিষয় নিয়ে দুই গ্রুপ ছাত্রদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে, শু‌নে তারা ঘটনাস্থ‌লে আ‌সেন। বর্তমা‌নে প‌রি‌স্থি‌তি শান্ত র‌য়ে‌ছে। প‌রি‌স্থি‌তি স্বাভাবিক রাখ‌তে ক্যাম্পা‌স কেন্দ্রীক এলাকায় পু‌লিশি নজরদারি বাড়া‌নো হ‌য়ে‌ছে।

ব্রজমোহন (বিএম) কলেজের অধ্যক্ষ স.ম ইমানুল হাকিম জানান, এ ঘটনায় কেন ঘটছে এখন পর্যন্ত বিস্তারিত জানতে পারিনি। তবে তদন্ত কমিটি গঠনের মাধ্যমে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

ঢাকা/ এইচ আর