শুক্রবার, ২২ জুন ২০১৮, ৮ আষাঢ় ১৪২৫
গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

ইবিতে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের মিছিল

ইবি প্রতিনিধি | আমারক্যাম্পাস২৪.কম

Published: 2018-06-06 19:32:43

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) প্রশাসনের বিরুদ্ধে মিছিল ও মোটর সাইকেল শোডাউন দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার বেলা ১টার দিকে ছাত্রলীগের সভাপতি গ্রুপের নেতৃত্বে মিছিলটি অনুষ্ঠিত হয়।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার দাবি ও প্রশাসনের নিয়োগ বানিজ্যের বিরুদ্ধে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিনের নেতৃত্বে দলীয় টেন্ট থেকে একটি মোটর সাইকেল মিছিল শুরু হয়। পরে মিছিলটি প্রশাসন ভবন, উপাচার্য বাসভবন, প্রকৌশল অফিস হয়ে প্রধান ফটকে এসে শেষ হয়। মিছিল থেকে একযোগে হর্ণ বাজিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করা হয়। এসময় মিছিলে অংশ নেন সাবেক ছাত্রলীগনেতা ও চাকুরিপ্রত্যাশী মাহবুব, টিটু, লিটন, আরব, সজল, শিমূল, কাশেম, সোলাইমান, খায়ের ও সজলসহ অন্যান্য বহিরাগতরা।

 এদিকে গত ৩মে ফার্মেসি বিভাগের নিয়োগকে কেন্দ্র করে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মাইকিং করে বহিরাগতদের প্রবেশে সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। এবং পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে বলে জানান।

ছাত্রলীগের সভাপতি গ্রুপের কর্মী ও চাকরী প্রত্যাশীদের সাথে কথা হলে তারা জানায়, ‘ক্যাম্পাসে নিরাপত্তার দাবি ও প্রশাসনের নিয়োগ বানিজ্যের বিরুদ্ধে আমরা মিছিল করেছি।’ এসময় তারা ককটেল বিষ্ফোরণকে সাজানো নাটক ও টাকার বিনিময়ে জামায়াত-বিএনপির সন্তানদের চাকুরি প্রদানের অভিযোগ করেন।

জানতে চাইলে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, ‘একটি মহল স্বাভাবিক কর্মকান্ডকে ব্যাহত করার চেষ্টা করছে। কিন্তু আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতায় সবকিছুই সচ্ছল ও স্বাভাবিকভাবে পরিচালিত হচ্ছে।’ বহিরাগহতদের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পাসের পরিচয়পত্র বহনে যাদের সক্ষমতা রয়েছে তারা ছাড়া সবাই বহিরাগত।’

ছাত্রলীগের ইবি শাখার সভাপতি শাহিনুর রহমান বলেন, ‘আমরা পত্র-পত্রিকায় প্রশাসনের নিয়োগ বানিজ্যের খবর দেখেছি। এর তীব্র ও প্রতিবাদ জানাই এবং গতরাতে ক্যাম্পাসে ককটেল হামলার সাথে যারা জড়িত তাদের দ্রুত শনাক্ত করার দাবি জানাচ্ছি।’ বহিরাগতদের ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘সকলের পরিচয় আমরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। তাই ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা কখনো বহিরাগত নয়।’

 

 

 

 

ঢাকা/ আমার ক্যাম্পাস/ অনি আতিকুর রহমান/ এ আই